পাটকল: পিপিপি পরিকল্পনায় উদ্যোক্তাদের সংশয়

Total Views : 274
Zoom In Zoom Out Read Later Print

আপাতত বন্ধ রেখে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) আওতায় আধুনিকায়ন করে ছয় মাসের মধ্যে উৎপাদনমুখী করার যে পরিকল্পনার কথা সরকার বলছে, তার বাস্তবায়ন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন এ খাতের ব্যবসায়ী ও রপ্তানিকারকরা।

সেকেলে যন্ত্রপাতি আর ‘দুর্নীতি-অপচয়ের’ দায়ে ডুবে যাওয়া সরকারি পাটকলগুলো পিপিপির ভিত্তিতে চালু করতে বেসরকারি খাত সহসা এগিয়ে আসবে না বলে মনে করছেন তাদের কেউ কেউ।

আবার কেউ বলেছেন, পিপিপি যদি সফলও হয়, সেজন্য দীর্ঘ সময় লেগে যাবে, তাতে বাজার চলে যাবে বাংলাদেশের প্রতিযোগী দেশগুলোর হাতে। এর বদলে মিল বন্ধ না রেখেও আধুনিকায়নের মাধ্যমে উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব ছিল।

বাংলাদেশ জুট গুডস এক্সপোর্টাস অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান বলেন, “এখন হয়ত সরকার এটা টেকনিক্যালি বলছে যে ছয় মাসের মধ্যে তারা এটা চালু করবে। ছয় মাসের মধ্যে এটা কে নেবে? যে ভাঙাচোরা মিল, মিলের যে অবস্থা... ৫০-৬০ বছর আগের মেশিনারিজ, প্রাইভেট সেক্টরের কেউ এই মুহূর্তে এগিয়ে আসবে না।

“আসতে হলেও তাদের প্রচুর সময় দিয়ে, প্রচুর ইনভেস্টমেন্ট করে... সরকারের ইনভেস্টমেন্ট, ব্যাংকের ইনভেস্টমেন্ট, ব্যাংকের কী দায়দেনা, লোন কী পর্যায়ে আছে...এগুলো করতেই ৬ মাস-এক বছর চলে যাবে। তারপর সরকার টেন্ডার দেবে, তারপর হয়ত করতে পারবে।”

See More

Latest Photos