লকডাউন শিবচরে পৃথক ২০ শয্যার আইসোলেশন সেন্টারের জন্য মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্র নির্ধারন

শিবচর (মাদারীপুর) সংবাদদাতা -

নমুনা টেস্টে শিবচরে বেড়াতে আসা এক চিকিৎসকসহ আরো ৩ জনের করোনা ভাইরাস পজিটিভ এসেছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ নিশ্চিত করেছেন। লকডাউন শিবচরের একই পরিবারের ৫ জনসহ আইসোলেশনে ভর্তি ৮জনের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে সিভিল সার্জন জানিয়েছেন। আইইডিসিআরের একটি টিম শিবচরের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান নিয়ে নমুনা সংগ্রহ করছেন।  এদিকে চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর নির্দেশনায়  শিবচরে পৃথক ২০ শয্যার আইসোলেশন সেন্টার চালুর প্রক্রীয়া শুরু হয়েছে। শিবচর উপজেলার দক্ষিন বহেরাতলা হাজী আবুল কাশেম উকিল মা শিশু কল্যান কেন্দ্রকে ২০ শয্যার আইসোলেশন কেন্দ্র ঘোষনা করা হয়েছে।  শনিবার দুপুরে কেন্দ্রটি পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক ডাঃ মোঃ সেলিম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কর্মকর্তা ডাঃ শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষসহ স্বাস্থ্য বিভাগ, উপজেলা প্রশাসন ও আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ প্রস্তুতি পরিদর্শন করেন।  এদিন ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী স্মৃতি সংসদ ও জেলা পরিষদের উদ্যোগে ৪ হাজার পরিবারের মাঝে বাড়িতে বাড়িতে খাবার সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কর্মকর্তা ডাঃ শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ বলেন, ১৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠালে ৩ জনের মধ্যে করোনা পজিটিভ এসেছে। এদের মধ্যে একজন আমাদের হাসপাতালের চিকিৎসকের স্বামী। সেও পেশায় চিকিৎসক। এছাড়া অন্য দুজন সম্ভবত নারায়নগঞ্জ থেকে আগত। আইসোলেশনে থাকারা স্থিতিশীল  রয়েছে।

জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, শিবচর প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকা। করোনা ভাইরাসের মারাত্মক ঝূকিতে রয়েছে। চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী স্যারের নির্দেশে আমরা শিবচরে পৃথক ২০ শয্যার আইসোলেশন সেন্টার খুলছি। শীঘ্রই এটি চালু হবে।

চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী মুঠোফোনে বলেন, করোনা রোগীরা যেহেতু একবার ভাল হয়ে যাওয়ার পর আবারো আক্রান্ত হয়েছে। তাই তাদের জন্য বিশেষায়িত চিকিৎসা ও নজরদারি প্রয়োজন। এজন্য বহেরাতলায় মা শিশু কেন্দ্রটিকে আইসোলেশনের জন্য বেছে নেয়া হয়েছে। এখানে চিকিৎসা খাবার পরিচর্যায় বিশেষ নজরদাড়ি থাকবে। প্রয়োজনে সরকারি অর্থায়নের পাশে আমি ব্যক্তিগতভাবে সহযোগিতা করবো।

বিষয়:   স্থানীয় সংবাদ       রবিবার ১২ এপ্রিল, ২০২০