তীব্র তুষারঝড়ে বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্রের ১০টি অঙ্গরাজ্যের জনজীবন

তীব্র তুষারঝড়ের কবলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের অন্তত ১০টি অঙ্গরাজ্যের জনজীবন। কানাডার দক্ষিণাঞ্চল আর যুক্তরাষ্ট্রের উত্তরাঞ্চলে অব্যাহত আছে তুষারঝড়। বার্লিংটন, ভারমন্টসহ ৪ রাজ্যে তাপমাত্রা নেমে এসেছে মাইনাস ২৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। শীতকালীন ঝড়ের কবলে পড়েছে ইউরোপ ও এশিয়ার কয়েকটি দেশও। ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানল, ঘূর্ণিঝড় ইরমা কিংবা হুস্টনের বন্যার তান্ডব নিয়েই ২০১৭ পার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। আর ২০১৮ শুরু হয়েছে তীব্র শীতের কাপুনিতে। ২৬ ডিসেম্বর ২০১৭ থেকে দক্ষিণ কানাডা আর যুক্তরাষ্ট্রের উত্তরাঞ্চল তীব্র শীতকালীন ঝড়ের কবলে পড়ে। মাইনাস ২৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় আংশিক জমে গেছে দুই দেশের সীমান্তে থাকা জলপ্রপাত নায়াগ্রা ফলস। একই রূপ নিয়েছে নিউ জার্সির পিটারসন গ্রেট ফলসও। শুধু জলপ্রপাত নয়, পার্কে থাকা পানির ফোয়ারাও শীতে জমে রূপ নিয়েছে বরফের পাহাড়ে। ব্যাহত হচ্ছে জনজীবন। বাতিল করা হয়েছে বিমানের অসংখ্য ফ্লাইট। বাদ যায়নি যুক্তরাষ্ট্রে পূর্ব উপকূলও। আর্কটিক বায়ুপ্রবাহের কারণে বার্লিংটন, ভারমন্ট, পোর্টল্যান্ড, মেইনি রাজ্যে তাপমাত্রা প্রায় শত বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন হয়েছে। বার্লিংটনে তাপমাত্রা মাইনাস ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে দাঁড়িয়েছে। যা ১৯২৩ সালের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড ভেঙ্গেছে। পোর্টল্যান্ডে ১৯৪১ সালের পর প্রথমবার মাইনাস ২৩ ডিগ্রি হয়েছে। জাতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, উরচেস্টার, ম্যাসাচুসেটস, রোড আইল্যান্ড, হার্টফোর্ড, কানেক্টিকাট, বোস্টন, ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া ১৯১২ সালের পর প্রথম শীতলতম আবহাওয়ার কবলে পড়েছে। জানানো হয়েছে, সোমবারের পর থেকে তাপমাত্রা কিছুটা হলেও বাড়তে পারে। ১৪ ইঞ্চি তুষার পড়েছে। আবার দমকা বাতাসও আছে। বেলচা দিয়ে তুষার সরিয়ে নেয়ার প্রায় সাথে সাথেই আবার তুষার পড়ছে। এটা আসলেই অনেক ভোগান্তিকর। স্পেনে তীব্র তুষারপাতের কবল থেকে সড়ক দুর্ঘটনা রুখতে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনীর প্রায় আড়াইশ সদস্যকে। শীতকালীন ঝড়ের কবলে পড়েছে চীনও। শিয়াংশি প্রদেশে বেশ কয়েকদিন ধরে অব্যাহত রয়েছে তুষারঝড়। তবে এসবের ঠিক বিপরীত অবস্থা অস্ট্রেলিয়ায়। দেশটিতে ৮০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি তাপদাহ চলছে। রোববার তাপমাত্রা ঠেকেছে ৪৭ ডিগ্রির কোটায়। এদিকে জলবায়ুর বিরুপ প্রভাবের মধ্যে নাসা জানিয়েছে, ১৯৮০ সালের পর থেকে কমতে শুরু করেছে ওজন স্তুরের বিশাল গর্ত। মন্ট্রিল প্রোটোকলের কারণে পরিবেশ দূষণকারী পদার্থের ব্যবহার নিষিদ্ধ করায় বায়ুমন্ডলে ক্লোরিনের উপস্থিতি কমেছে। একারণে ওজন স্তরও আরোগ্য লাভ করতে শুরু করেছে। তবে এর সাথে আবহাওয়ার তারতম্যের কোন সম্পর্ক নেই। কারণ উন্নতিটা এখন খুব সামান্য।

বিষয়:   আন্তর্জাতিক       সোমবার ৮ জানুয়ারী, ২০১৮